আবারো সন্ত্রাসের আর্থিক মদদদাতার তালিকায় পাকিস্তান

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক★ ‘সন্ত্রাসে আর্থিক মদদদাতা’ দেশ হিসেবে ফের নজরদারি তালিকায় নাম উঠছে পাকিস্তানের। সম্প্রতি প্যারিসে ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের (এফএটিএফ) বৈঠক শেষে শুক্রবার রাতে এ তথ্য জানা যায়। বৈঠকে উপস্থিত নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক পাক কর্মকর্তাও এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন। অবশ্য বিষয়টি সম্পর্কে কিছুই জানায়নি পাকিস্তান পরারাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
পাকিস্তানকে কোণঠাসা করতে গত কয়েক মাস ধরেই আটঘাট বাঁধছিল ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন। ইসলামাবাদের সন্ত্রাস-দমন নীতিতে বারবার নিজেদের অসন্তোষ প্রকাশ করেছে হোয়াইট হাউস। সেই মতোই, পাকিস্তানকে তালিকায় ঢোকানোর ব্যাপারে প্যারিসের আন্তর্জাতিক নজরদারি গোষ্ঠীর কাছে প্রস্তাব দিয়েছিলো তারা। পাশে দাঁড়িয়েছিল ভারত-ফ্রান্স-ব্রিটেনও।
পাকিস্তানের পাশে দাঁড়িয়ে ক্রমাগত বাগড়া দিয়ে আসছিল চীন। সঙ্গে জুটেছিল রাশিয়া, সৌদি আরব ও তুরস্ক। শোনা যাচ্ছিল, এ যাত্রায় বুঝি রক্ষা পেয়ে গেল পাকিস্তান। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। মঙ্গলবার পাকিস্তান পরারাষ্ট্র মন্ত্রী খাজা আসিফ ‘বন্ধুদের’ ধন্যবাদ জানিয়ে টুইটও করে বসেন। তিনি জানান, নিজেদের নির্দোষ প্রমাণে আরো তিন মাস সময় পাচ্ছে ইসলামাবাদ। কূটনীতিকদের একাংশের দাবি, নিজেদের সন্ত্রাস-বিরোধী প্রমাণ করতেই মু্ম্বাই হামলার মূলচক্রী হাফিজ সৈয়দকে সম্প্রতি ‘জঙ্গি’ তকমা দিয়েছিল পাকিস্তান।
এর আগে ২০১২ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত এফটিএফের গ্রে লিস্টে নাম ছিল পাকিস্তানের। তখন অবশ্য শুধুই অর্থ পাচারের অভিযোগ ছিল। এবার তাদের বিরুদ্ধে সরাসরি সন্ত্রাসে আর্থিক মদতের অভিযোগ করা হচ্ছে। এফএটিএফের সদস্যদের মধ্যে আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডার, বিশ্ব ব্যাংক, জাতিসংঘ, ইউরোপীয় কমিশনের শীর্ষ কর্তারা রয়েছেন। আনন্দবাজার।

Share.

Leave A Reply